বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

পাঁচবিবি উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন দোকান বাঁকী টাকা চাওয়ায় দোকান ভাংচুর

মোঃ গোলাম মোরশেদঃজয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বেড়াখাই গ্রামে দোকান বাঁকীর পাওনা টাকা চাওয়ায় সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ীর দোকান ভাংচুর ও টাকা লুটপাট করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।

১৫ মার্চ শুক্রবার বেলা ১২ টায় উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বেড়াখাই নান্দাশ মোড়ে আনিছুর রহমানের সার ও কীটনাশকের দোকানে এ ঘটনা ঘটে। আনিছুর রহমান সার, বীজ কীটনাশকের একজন ব্যবসায়ী। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
সরে জমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার বেড়াখাই গ্রামের নান্দাশ আনিছুর রহমানের দোকান থেকে পাশের ছোট মোহম্মদপুর গ্রামের আফসার হোসেন ওরফে আন্তাজ মাষ্টার নামে এক ব্যাক্তি প্রায় ৩২ হাজার টাকার সার ও কীটনাশক বাঁকী নেয়।
আনিছুর বলেন শুক্রবার ১২টার দিকে সে আমার দোকানের সামনে আসলে আমি তার থেকে টাকা চাই। এসময় আফসার হোসেন ওরফে আন্তাজ মাষ্টার আমার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এক পর্যায়ে সে লাঠি সোটা নিয়ে দলবল সহ এসে আমাকে মারপিট করে দোকানে ভাঙচুর করে।
অভিযোগের বিষয়ে আফসার হোসেন ওরফে আন্তাজ মাষ্টার বলেন,আনিছুর যে অভিযোগ করেছে সেটি সম্পূর্ণ বানোয়াট ও মিথ্যা। আমার কাছে সে টাকা পাবে সেটি সত্য। তবে আমার নিকট থেকে আনিছুর ইরি বোরো ধানের অতিরিক্ত চারা নিয়েছে সে কথা বলতে গেলে বরং সে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং তখন দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে।
উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহবায়ক শাহরিয়ার রহমান শৈশব বলেন, এটি একটা ন্যাক্কার জনক ঘটনা। এঘটনায় দোষীকে আইনের আওতায় নেয়া দরকার।
মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম রবিউল আলম চৌধুরী (পিন্টু) বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। যারা এই অন্যায় করেছে আইনের মাধ্যমে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত। আমি বিষয়টি তাৎক্ষণিক পাঁচবিবি থানার ওসি মহোদয়কে অবগত করেছি।
পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ফয়সাল বিন আহসান বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সম্পর্কিত