বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

বাড়ি বানাতে ২৭ লাখ টাকার ঋণ পাবেন যারা

উত্তরবঙ্গের সংবাদ ডেস্ক : স্বল্প আয়ের মানুষ এবার বাড়ি বানাতে বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশনের (বিএইচবিএফসি) নতুন একটি পণ্যের আওতায় সর্বোচ্চ ২৭ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবেন। ‘স্বপ্ননীড়’ নামের এই পণ্য গত ১৯ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হয়েছে।

কম-বেশি এক হাজার বর্গফুটের গৃহ বা বাড়ি নির্মাণের জন্য এই ঋণ পাওয়া যাবে। তবে এই ঋণ পেতে গেলে ১০ শতাংশ টাকা গ্রাহকের নিজের কাছে থাকতে হবে। অর্থাৎ ৩ লাখ টাকার নিজস্ব বিনিয়োগ থাকলে সেই বাড়ি নির্মাণের জন্য ২৭ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেবে সরকারি এই প্রতিষ্ঠান।

রাজধানীর বিএইচবিএফসি ভবনে পণ্যটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এলাকা ভিত্তিতে এই ঋণের জন্য দুই ধরনের সুদহার ঠিক করা হয়েছে।

বিএইচবিএফসি জানিয়েছে, এই ঋণের জন্য ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটির বাইরে গ্রহীতাকে বার্ষিক ৮ শতাংশ হারে সুদ দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে প্রতি ১ লাখ টাকায় ২৫ বছর মেয়াদের এই ঋণের মাসিক কিস্তি হবে ৭৭১ টাকা ২০ পয়সা। অন্যদিকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি এলাকার ভেতরে কোনো গ্রাহক এই ঋণ নিতে চাইলে তাঁদের জন্য সুদের হার হবে ৯ শতাংশ। সে ক্ষেত্রে ২৫ বছর মেয়াদে মাসিক কিস্তি হবে ৮৩৯ টাকা ২০ পয়সা।

‘স্বপ্ননীড়’ পণ্যের আওতায় গ্রহীতা আরেকটি ঋণ নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে বহুতল ভবনের একক ইউনিট নির্মাণের জন্য সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার ঋণ পাওয়া যাবে।

বিএইচবিএফসির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নতুন এই ঋণ নিতে গেলে গ্রাহকেরা আবেদন ও পরিদর্শন ফির ক্ষেত্রেও ছাড় পাবেন। অন্য ঋণের ক্ষেত্রে যেখানে হাজারে ছয় টাকা দিতে হয়, সেখানে এই ঋণের জন্য আবেদন ও পরিদর্শন ফি বাবদ দিতে হবে অর্ধেক, অর্থাৎ তিন টাকা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ বলেন, স্বপ্ননীড় পণ্যটি সরকারি-বেসরকারি শিক্ষক, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মচারী, নিবন্ধিত স্বাস্থ্যকর্মী, ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট ও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরে কর্মরত স্বল্প আয়ের চাকরিজীবীদের স্বপ্নের গৃহ নির্মাণে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

বিএইচবিএফসি পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মো. সেলিম উদ্দিন বলেন, সমাজের বিশেষ শ্রেণি-পেশার বৃহৎ এক জনগোষ্ঠী সাশ্রয়ী মূল্যে নিরাপদ আবাসিক গৃহ নির্মাণে এ অর্থায়ন সুবিধা গ্রহণ করে ব্যাপকভাবে উপকৃত হবে।

বিএইচবিএফসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল মান্নান তাঁর স্বাগত বক্তব্যে স্বপ্ননীড়কে স্বল্প আয়ের মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আন্তরিকভাবে কাজ করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান।

গৃহ নির্মাণে ঋণ ও বিনিয়োগ সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সরকারের একমাত্র বিশেষায়িত সংস্থা বিএইচবিএফসি সাত দশকের বেশি সময় ধরে আবাসন নির্মাণে কাজ করছে। সহজ শর্তে দীর্ঘ মেয়াদে ঋণ দেয় সরকারি এ সংস্থা। ঋণ বিতরণের জন্য আনা স্বপ্ননীড় বিএইচবিএফসির ১২তম পণ্য।

সম্পর্কিত