বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সুন্দরগঞ্জে তিস্তায় পাওয়া বোমা সাদৃশ্য বস্তু বিস্ফোরণে আহত ৪

হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের জিগাবাড়ির চর গ্রামের আব্দুল হাকিম মিয়ার বাড়িতে তিস্তা নদীতে কুড়িয়ে পাওয়া বোমা সাদৃশ্য বস্তু বিস্ফোরণে একই পরিবারের চারজন অঙ্গহানিসহ গুরুত্বর আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সন্ধ্যায়।

জানা গেছে, শনিবার সকালে আব্দুল হাকিম মিয়ার দুই ছেলে ফারুক মিয়া (১৮) ও রিপন মিয়া (১৬) তিস্তা নদীর জিগাবাড়ির চরে ভূট্টার বীজ লাগাতে যায়। বিকালে বাড়ি ফেরার সময় তিস্তা নদীতে বোমা সাদৃশ্য বোতল আকৃতির একটি বস্তু দেখতে পেয়ে, তা কুড়িয়ে নিয়ে বাড়িতে আসে দুই ভাই। সন্ধ্যায় পিতাসহ দুই ছেলে এবং মা পারভীন বেগম মিলে বোমা সাদৃশ্য বস্তুটি ভাঙ্গার চেষ্টা করে। এক পর্যায় দেশীয় অস্ত্র দা দিয়ে বস্তুটিকে আঘাত করলে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে চারজন আহত হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। তাদের সকলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে আব্দুুল হাকিম মিয়ার (৪২) একটি হাত এবং ফারুক মিয়ার একটি চোখ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। 

স্থানীয় বেলকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মজিবুর রহমান মজি জানান, তিস্তা নদীতে কুড়িয়ে পাওয়া বোমা সাদৃশ্য বোতল আকৃতির বস্তু বিস্ফোরণে হাকিমসহ তার পরিবারের চারজন আহত হয়েছে। তার ধারনা বস্তুটি বন্যার সময় নদীতে ভেসে এসে জিগাবাড়ির চরে আটকে যায়। 

খবর পেয়ে থানার ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। তিনি বলেন বস্তুটি নদীতে কুড়িয়ে পায় আব্দুল হাকিম মিয়ার দুই ছেলে। সেটি বাড়িতে নিয়ে এসে ভাঙ্গার চেষ্টা করলে বিস্ফোরণ ঘটে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে এটি তিস্তার বন্যাতে উজান থেকে ভেসে আসে। বিষয়টি পরিক্ষা-নিরিক্ষা করে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।  

সম্পর্কিত