বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

লালমনিরহাটে এমপি পুত্রের হলফনামায় তথ্য গোপনের অভিযোগে মনোনয়ন পত্র বাতিলের দাবি

সোহেল রানা, কালীগঞ্জ(লালমনিরহাট) প্রতিনিধি: লালমনিরহাট-০২ (কালীগঞ্জ, আদিতমারী) সংসদীয় ১৭ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মোঃ নূরুজ্জামান আহমেদ এমপির পুত্র রাকিবুজ্জামান আহমেদের দাখিলী হলফনামায় তথ্য গোপনের অভিযোগে মনোনয়ন পত্র বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ২বারের সফল চেয়ারম্যান, মাহবুবুজ্জামান আহমেদ।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) বিকাল ৪টা ৩০মিনিটে লালমনিরহাটের নর্থকিং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে  কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ-এর আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন  কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ।  এসময় তার সাথে ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক মোস্তা ফিজুর রহমান মোস্ত ও এ্যাডভোকেট রাজা মিয়া,  তার পুত্র ব্যারিস্টার সাকিব মাহবুব ও সাজিদ মাহবুব মেলভিন প্রমুখ সহ  কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্তরের অন্যান্য নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্যে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ বলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাকিবুজ্জামান আহমেদ তার দাখিলী হলফনামায় তথ্য গোপন করায় মনোনয়ন পত্র বাতিলের দাবি জানান তিনি। সেই সাথে রাকিবুজ্জামান আহমেদ নির্বাচনী হলফনামায় ২০১৩ এর ১৭ এর নির্বাচনী বিধি উপবিধি (৩) এর দফা (ঙ) অনুসারে এর সমর্থনে জমি ক্রয়ের দলিল এবং সরকারী বেতন উত্তোলণ গোপন করিয়া তথ্য গোপন করেছেন। যাহা পরিপত্র (৭) এর ৪ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। দাখিলকৃত প্রমান ও তথ্যাদি অনুসারে প্রার্থী রাকিবুজ্জামান আহমেদের মোট জমির পরিমাণ ৪২.২৩ একর, তন্মধ্যে প্রার্থী ১৬.৬৫ একর জমির বিবরণ উল্লেখ করিয়াছেন। অবশিষ্ট ২৫.৫৮ একর জমি যাহার মূল্য ১,৪৬,৮৫,০০০/-(এক কোটি ছেচল্লিশ লক্ষ পচাঁশি হাজার) টাকা যাহা প্রার্থী তাহার দাখিলকৃত হলফনামায় উল্লেখ করেন নাই। প্রার্থী স্বয়ং জ্ঞাত সারে তথ্য গোপন করিয়াছেন এবং তিনি ০১ (এক) বছরের সরকারী কলেজ থেকে প্রভাষক পদে প্রাপ্ত বেতন বাবদ ৩,৩৪,৩২৪/-(তিন লক্ষ চৌত্রিশ হাজার তিনশত চব্বিশ) টাকা উত্তোলন করিয়াছেন যাহা প্রার্থী তাহা হলফনামায় উল্লেখ করেন নাই। প্রার্থী জ্ঞাত সারে দাখিলী হলফ নামায় তথ্য গোপন করিয়াছেন। যাহা নির্বাচনী বিধি মালা ২০১৩ (১৭) এর বিধি উপবিধি ৩ এর ধারা মোতাবেক সুনির্দিষ্ট অপরাধ। যাহার ফলে প্রার্থীর দাখিলী মনোনয়ন পত্র বাতিল হইবে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন। মাহবুবুজ্জামান আহমেদ প্রশ্ন রাখেন রাকিবুজ্জামান আহমেদ এর আয়ের উৎস কি? তিনি গত ৭ ই জানুয়ারীর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নুরুজ্জামান আহমেদ এমপির হলফনামায় পুত্র সম্পর্কে কি উল্লেখ করেছেন তা খতিয়ে দেখতে আহবান জানান।

উল্লেখ যে,  বিভিন্ন ইস্যুতে রাজনৈতিক ভাবে  এমপি নুরুজ্জামান আহমেদ ও তার সহোদর ভাই উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ এর সহিত দ্বন্দ থাকার কারনে এমপি নুরুজ্জামান আহমেদ তার ছোটভাই মাহবুবুজ্জামান আহমেদকে রাজনৈতিকভাবে কোনঠাসা করে তার পুত্র রাকিবুজ্জামান আহমেদ কে প্রথমে সরাসরি ভাইকে সরিয়ে তারই পদে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দখলে নেন। এবার তিনি সরাসরি এক গণ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নিজের পুত্র কে উপজেলা চেয়ারম্যান  প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েন। বর্তমানে তিনি নিজ নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করে তার ছেলের পক্ষে নির্বাচনে কাজ করতে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রভাবিত করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন মাহবুবুজ্জামান আহমেদ।

অপরদিকে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিলকারী প্রার্থীগণ হলেন-  নুরুজ্জামান  আহমেদ এমপির পুত্র রাকিবুজ্জামান আহমেদ, কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের দুবারের সফল চেয়ারম্যান, তার ছোটভাই মাহবুবুজ্জামান আহমেদ ও  তারিকুল ইসলাম তুষার।

উল্লেখ্য যে, ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদের ২য় পর্যায়ের সাধারণ নির্বাচনে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় ভোট হবে আগামী ২১ মে।

সম্পর্কিত