মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

লাখাইয়ে সরিষা ক্ষেতে শোভা পাচ্ছে হলুদ ফুলে, অর্জিত ১০৬০ হেক্টর

এম এ ওয়াহেদ, লাখাইঃ হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার বিভিন্ন মাঠে শোভা পাচ্ছে সরিষার হলুদ ফুলে। এ বছর অর্জিত হয়েছে ১০৬০ হেক্টর জমি। এ উপজেলা ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত লাখাই উপজেলা। এ ছাড়াও এ উপজেলা নিম্নাঞ্চল হওয়া সত্বেও শীত মৌসুমে শীতকালীন ফসল উৎপাদন এর ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই। খোঁজ নিয়ে জানা যায় এ উপজেলার মোড়াকরি ও মুড়িয়াউক ইউনিয়নে শীত মৌসুমে রবিশস্য বেশী চাষাবাদ হয়ে থাকে। এ ছাড়াও করাব ও বামৈ ইউনিয়নে অন্যান্য ইউনিয়নের তুলনায় কম চাষাবাদ হয়। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে মুড়িযাউক ও মোড়াকরি ইউনিয়নের প্রতিটি মাঠ সিরিষা হলুদ ফুলে হাতছানি দিয়ে ডাকছে। এতে মন জুড়িয়ে এই হলুদ ফুলের গন্ধে ও রঙে।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ মাহমুদুল হাসান মিজান এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি এ প্রতিনিধিকে জানান, এ বছর সরিষা আবাদে লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩৫০ হেক্টর জমি এবং উৎপাদন লক্ষ্য মাত্রা ধরা হয়েছিল ২৫ শ মেঃ টন সরিষা কিন্তু নভেম্বর মাসে পর পর ২ বার বৃষ্টি হওয়ায় নির্ধারিত লক্ষ্য মাত্রা অর্জিত হয়নি, এর পরেও এ বছর অর্জিত হয়েছে ১০৬০ হেক্টর জমি।

এ বিষয়ে কয়েকজন কৃষকের সাথে আলাপ কালে তারা জানান, সরিষা একটি লাভজনক ফসল। লাভজনক ফসল কেন এর ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন আমন ধান কেটে সরিষার ফসল উঠার পর ঔ জমিতে বোরোধান চাষাবাদ করতে পারি, এতে শস্য নিবিড়ত যেমন বাড়ছে অন্যদিকে আমরাও লাভবান হচ্ছি। তারা আরো বলেন উপজেলা কৃষি অফিস এর মাধ্যমে বিনামূল্যে সার বীজ ও কীটনাশক নিয়মিত পেয়ে আসছি এবং কৃষি অফিসের কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তাগন নিয়মিত ভাবে আমাদের ফসলের খোঁজ খবর নিচ্ছে এবং বিভিন্ন ভাবে পরামর্শ দিয়ে আসছে।

সম্পর্কিত