আজ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ



রাণীনগরে রূপসী নওগাঁর ঈদ উপহার পেল অর্ধশতাধিক দুঃস্থ পরিবার

 

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ
সমাজের প্রায় অর্ধশত সুবিধাবঞ্চিত ও দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন রূপসী নওগাঁ। বুধবার (২৭ এপ্রিল) নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ঘোষগ্রাম (বেদগাড়ি) এলাকায় রূপসী নওগাঁর প্রচার সম্পাদক মোস্তফা জামালের নেতৃত্বে ঘুরে ঘুরে এই উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। উপহারের ভেতর ছিলো শাড়ি, লুঙ্গি, সেমাই, চিনি, দুধ, পোলাও চাউল ও তৈল।
সংগঠনের সদস্যরা প্রতিবছরই তাদের ঈদের খরচ বাঁচিয়ে সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের জন্য নতুন পোষাক, সেমাই, চিনি, দুধ, তেল ও পোলাও চাউল উপহার দেয়।
সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে নিজেদের ঈদ মার্কেটের টাকায় ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করে থাকে। এবার অল্প পরিসরে প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তির মাঝে ঈদ উদযাপন সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত ও দুঃস্থ পরিবারের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগ করে নিলো সংগঠনটি।
জানাগেছে “রূপসী নওগাঁ” নওগাঁ জেলার অন্যতম একটি সক্রিয় অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন। সামাজিক কর্মকান্ড ও মানুষের কল্যাণে কাজ করার লক্ষ্যে ২০১৬ সালে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর শুরু হয় সংগঠনের একের পর এক ব্যতিক্রমী কার্যক্রম। এই সংগঠন যাত্রা শুরুর পরে হতেই ব্যতিক্রমী সব কার্যক্রমে জয় করছে সাধারণ মানুষের ভালোবাসা।
স্বেচ্ছায় রক্তদান, শীতার্তদের মাঝে বিনামূল্যে শীতবস্ত্র বিতরণ, পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ ও তাদের শিক্ষা প্রদানের ব্যবস্থা করা, অসহায় অবহেলিত পরিবারের মাঝে ঈদে পোশাক ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষুধ প্রদান, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী ও বৃক্ষরোপণে উৎসাহিত করা, বেওয়ারিশ লাশ দাফন, বয়স্ক লোকদের শিক্ষার ব্যবস্থা করা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা মূলক কর্মসূচি ও মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন ও তাদের ফেসবুক পেইজের দ্বারা বিশ্বময় নওগাঁ জেলার ইতিহাস ঐতিহ্য তুলে ধরা এই সংগঠনের অন্যতম কার্যক্রম।
রূপসী নওগাঁ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ডেন্টিস্ট খালেদ বিন ফিরোজ বলেন, ২০১৬ সালে স্বেচ্ছাসেবী এ অরাজনৈতিক সংগঠনটি গড়ে তোলা হয়। মানবতার সেবায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত ও অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটানোই এ সংগঠনের মূল উদ্দেশ্য। সমাজের বিত্তবানরা আমাদের পাশে দাঁড়ালে আরও মানুষকে সহযোগিতা করতে পারব। তবে চেষ্টা করে যাচ্ছি সমাজের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। আগামীতেও আমাদের এমন কার্যক্রম অব্যহত থাকবে।
তিনি আরও বলেন, ধনীদের সম্পদে গরীবের হক রয়েছে। এই মাহে রমজান ও ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে বিত্তবানরা অসহায়দের পাশে দাঁড়ালে ঈদ আনন্দ সবার মাঝে সমান হবে। তবে এ ঈদ হবে সত্যিকারের ঈদ। অসহায় গরীবদের মাঝে দু:খ-কষ্ট থাকবে না।#



Comments are closed.

      আরও নিউজ

ফেসবুক পেইজ