বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

রাজশাহীতে এমপি ফারুকসহ ৭ জনের প্রার্থীতা পেন্ডিং, বাতিল ১৭

সাধীন আলম হোসেন,বিশেষ প্রতিনিধি:রাজশাহীর ৬টি আসনে ৬০টি মনোনয়নপত্র দাখিল পড়ে। যাচাই-বাছাই শেষে ৩৬ জনের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করেছে রিটার্নিং অফিসার। একই সঙ্গে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে ১৭টি এবং পেন্ডিং রাখা হয়েছে ৭টি। রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সভাকক্ষে প্রার্থীদের সামনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সম্পন্ন করেন রাজশাহী জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার শামীম আহমেদ।

তিনি বলেন, যাদের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে তারা আপিল করতে পারবেন। আর যাদের পেন্ডিং রাখা হয়েছে তাদের সোমবারের মধ্যে কাগজপত্র দেখালে প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হবে।

রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর)

এ আসনে আওয়ামী লীগের চার বিদ্রোহী প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। রোববার যাচাই-বাছাই শেষে চারজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এরা হলেন, আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান আখতার, গোলাম রাব্বানী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মীনি শাহনেওয়াজ আয়েশা আখতার জাহান ডালিয়া ও চিত্রনায়িকা শারমিন আক্তার নিপা মাহিয়া।

এছাড়াও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৫৬ টাকা হোল্ডিং ট্যাক্স বাকি থাকায় আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী ও তিনবারের এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর মনোনয়নপত্র পেন্ডিং রাখা হয়েছে।

একই সঙ্গে ছয় জনের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরী, বিএনএফ দলের প্রার্থী আল-সাআদ, তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী জামাল খান দুদু, এনপিপির প্রার্থী নুরুন্নেসা, বাংলাদেশ সাংস্কৃতি মুক্তিজোট প্রার্থী বশির আহমেদ, জাতীয় পার্টি থেকে শামসুদ্দীন মন্ডল ও বিএনএম’র প্রার্থী শামসুজ্জোহা বাবু।

রিটার্নিং অফিসার শামীম আহমেদ জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে এক শতাংশ ভোটারের সাক্ষরসহ তালিকা জমা দিতে হয়। এর মধ্যে চিত্রনায়িকা শারমিন আক্তার নিপা মাহিয়া তিনটি ভোটারের নমুনা পাওয়া যায়নি। আর একজন ভোটার নয়। এছাড়াও ললিতা মান্ডি নামের একজন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোলের ভোটার।

অপরদিকে, শাহনেওয়াজ আয়েশা আখতার জাহান ডালিয়া দেওয়া সাক্ষরের সাতটি ভোটারের তথ্য পাওয়া যায়নি। গোলাম রাব্বানীর দেওয়া তিনজন ভোটারের ঠিকানা এবং আকখতারুজ্জামান আখতারের নয়জন ভোটোরের সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি।

রাজশাহী-২ (সদর)

এ আসনে আওয়ামী লীগের তিন বিদ্রোহী প্রার্থী পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছে রিটার্নিং অফিসার। রোববার যাচাই-বাছাই শেষে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। একই সঙ্গে সাতজনের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। আর ঋণখেলাপীর কারণে বিকেল ৩টা পর্যন্ত প্রক্রিয়াধীন রাখা হয়েছে।

যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে তারা হলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট আবু রায়হান মাসুদ, রোজাউন নবী আল মামুন, জাতীয় পার্টির সাবেক নেতা শাহাবুদ্দিন বাচ্চু ও মো. মনিরুজ্জামান।

রিটার্নিং অফিসার শামীম আহমেদ জানান, বাতিল হওয়াদের মধ্যে শাফিকুর রহমান বাদশার মনোনয়নপত্র অসম্পন্ন। আর আবু রায়হান মাসুদের দেওয়া আটজন ভোটারের তথ্য এবং রেজাউন নবী আল মামুনের নমুনা সাক্ষর সঠিক নয়।

এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাবুদ্দিনের মনোনয়নপত্র অসম্পন্ন এবং মনিরুজ্জামান তিনটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণখেলাপী। অপরদিকে, ঋণখেলাপীর দায়ে তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী মোহাম্মদ শামীম মনোনয়নপত্র বিকেল ৩টা পর্যন্ত পেন্ডিং রাখা হয়েছে।

যাদের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে তারা হলেন, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান এমপি ফজলে হোসেন বাদশা, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও মহানগরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, মহানগর জাসদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ সিদ্দিকী শিবলী, মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক ও তাদের দলীয় প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন, বিএনএম এর প্রার্থী কামরুল হাসান, মুক্তিজোট প্রার্থী ইয়াসির আলিফ বিন হাবিব ও বাংলাদেশ কংগ্রেস এর প্রার্থী মারুফ শাহরিয়ার।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর)

এ আসনে তিনজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। রোববার সকালে যাচাই-বাছাই শেষে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ। একই সঙ্গে ছয়জনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা এবং দুইজনের মনোনয়নপত্র পেন্ডিং রাখা হয়েছে। এ আসনে ১১ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

রিটানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় পার্টি নেতা শাহবুদ্দিন বাচ্চু, মোহাম্মদ নিপু হোসেন ও গণফন্ট প্রার্থী মনিরুজ্জামান স্বাধীনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এদের মধ্যে শাহবুদ্দিন অসম্পন্ন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও নিপু হোসেনের ভোটার তালিকা অসম্পর্ণ এবং মনিরুজ্জামান তিনটি আর্থীক প্রতিষ্ঠানের ঋণখেলাপী। এছাড়াও মনোনয়নপত্র পেন্ডিং রাখা হয়েছে এনপিপির সইবুর রহমান ও মুক্তিজোটের এনামুল হকের।

এ আসনে বৈধ প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী ও জেলার সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আয়েন উদ্দিন, বিএনএম এর মনোনিত প্রার্থী ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান একেএম মতিউর রহমান মন্টু, জাতীয় পার্টির সোলাইমান হোসেন ও আব্দুস সালাম খান, বিএনএফের বজলুর রহমান।

রাজশাহী-৪ (বাগমারা)

এ আসনে একজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। রোববার সকালে যাচাই-বাছাই শেষে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ। একই সঙ্গে তিনজনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা।

সম্পর্কিত