বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে নির্মাণ শ্রমিক সভাপতির বাড়িতে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা ও ভাঙচুর

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার পশ্চিম উজানচর নবুওছিমুদ্দিন পাড়া নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রাজ্জাক সরদারের বাড়িতে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হামলা ও ভাঙচুর করে নগত ৭লক্ষ টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

 

শনিবার (২৩ মার্চ) ভোর সাড়ে ৬ টার সময় নবুওছিমুদ্দিন পাড়ায় এই ঘটনাটি ঘটে।

 

এই ঘটনায় ৩ জনকে অভিযুক্ত করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

 

অভিযুক্তরা হলেন, একই উপজেলার নবুওছিমুদ্দিন পাড়ার মৃত নজিমুদ্দিন নলিয়ার ছেলে আজাহার নলিয়া (৬০), আনোয়ার নলিয়া (৪৫), আজাহার নলিয়ার ছেলে জাকির নলিয়া (৩৫) সহ আরো অজ্ঞাতনামা ৩ থেকে ৪ জন কে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

 

ভুক্তভোগী রাজ্জাক সরদার বলেন, পূর্ব থেকেই বাড়ীর সামনের জমি নিয়ে বিরোধ চলছিলো হঠাৎ আজ ভোর অনুমান সাড়ে ৫ টার সময় আমি ও আমার স্ত্রী সেহেরী ও নামাজ শেষে আমার বাড়ীর বিল্ডিং ঘরের ২ তলায় শয়ন কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ি ভোর সাড়ে ৬ টার দিকে নুরু ইসলাম ফকির ইউসুফ শেখ আমির শেখে এরা তিনজনে ট্রলিতে করে আমার ইট বাড়ীর সামনে নামাতে থাকে সে সময় বিবাদীগনরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে এসে আমার বাড়ীর তিনটি সি সি ক্যামেরা ভাংচুর ও দুটি বৈতিক মিটার ভাংচুর করে ট্রলি চাকদের মারপিট করে আমার বাড়ীর ২ তলা আমার শয়ন কক্ষে ডুকে আমাদের মারপিট করে ডয়ার ভেঙে নগত ৭ লক্ষ টাকা ও ১০ ভরি সোনার গহনা নিয়ে গেছে।

 

অভিযুক্ত আজাহার নলিয়া বলেন, আমারা রাজ্জাকের বাড়ী কেউ যায়নি। আমার ছেলে জাকির ও তাদের বাড়ী যায়নি। তাদের কে কেউ মারপিট করেনি এগুলো সূর্স্পন্ মিথ্যা ও বানোয়াট।কিন্তু আজাহার নলিয়া স্ত্রী বলেন আমার ছেলে তাদের একটি লাইট ভেঙেছে।আমি সে সময় আমার ছেলেকে টেনে বাড়ীতে নিয়ে এসেছি।

 

এ বিষয় গোয়ালন্দ ঘাট থানা’র অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রাণবন্ধু চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, হামলা ও ভাঙচুরের বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করিবো

সম্পর্কিত