জানুয়ারী ২৭, ২০২৩ ১১:১২ সকাল



মিথ্যা বানোয়াট সংবাদের প্রতিবাদ মিনহাজের

প্রেস বিজ্ঞপ্তি>>

২ মার্চ প্রকাশিত ‘সময়ের গর্জন ডটকম, ফেয়ার বার্তা ডটকম ও জনপদ সংবাদসহ বিভিন্ন অনলাইনে “ফেনীতে সময়ের গর্জন সম্পাদকে প্রাণনাশের হুমকি” এই শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এমন উদ্দেশ্য প্রণোদিত মিথ্যা বানোয়াট সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ব্যবসায়ী ও সেচ্ছাসেবী সংগঠক মিনহাজ উদ্দিন। ৪ মার্চ প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

সেচ্চাসেবী সংগঠক মিনহাজ তার প্রতিবাদলিপিতে বলেন, প্রতিবেদনে তার সম্পর্কে প্রকাশিত তথ্যগুলো মিথ্যা ও বানোয়াট। নিজেকে সাংবাদিক দাবী করা মুখোশদারী নামকাওয়াস্তে সময়ের গর্জন সম্পাদক আরিফকে প্রাণনাশের হুমকির বিষয়গুলোও সম্পূর্ণ বানোয়াট। তিনি প্রতিবাদলিপিতে বলেন, দুই বছর আগে আরিফের সাথে আমার ঘনিষ্ঠতা হয়। ২০১৯ সালের মার্চে তার ১ লক্ষ টাকার প্রয়োজন হয়। এসময় অনেকের কাছে টাকা ধার চেয়েও পাইনি৷ আরিফের লেনদেন খারাপ থাকার কারণে কেউ টাকা দিতে রাজি হয়নি৷ ব্যাংক থেকেও জিম্মাদার বা কোন ডকুমেন্টস দিতে না পারায় টাকা লোন নিতে পারেনি। কোথাও টাকা না পেয়ে সর্বশেষ আমার কাছে টাকা চাই এবং তার অসহায়ত্বের কথা জানাই।

আমি মানবিকতা ও ঘনিষ্ঠতার কারণে আমার ব্যবসায়িক পরিচয়ে ব্যাংক থেকে সরল বিশ্বাসে আমার নামে এক লক্ষ টাকা নিয়ে আরিফকে লোন দিই। এই টাকার প্রথম কিস্তি আরিফ আমার মাধ্যমে পরিশোধ করে। এসব বিষয়ে ব্যবসায়ী হেলাল শাহাদাত ভাই, ফিরোজী ভাই, সাংবাদিক মারুফ এবং জাহাঙ্গীর ভাই অবগত আছেন। পরবর্তীতে আরিফ লোনের বাকী টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয় এবং বিভিন্ন সমস্যা দেখায়। এসময় টাকা পরিশোধের জন্য তাকে বার বার বললেও সে ব্যাংকের টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়। কিছুদিন পর পুনরায় টাকার কথা বললে আরিফ লোন নেওয়ার কথা অস্বীকার করে।

তিনি বলেন, আরিফের সাথে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করতে না পেরে তার গ্রামের বাড়ীতে বিষয়টি জানানোর জন্য যায়। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার নামে থানায় জিডি করে। এছাড়া বিভিন্ন ভাবে সে আমাকে হয়রানি করে এবং বিভিন্ন মানুষের মাধ্যমে আমাকে হুমকি দুমকি দেই।

সামাজিকভাবে আমার মানসস্মান নষ্ট করা ও আমাকে হেও প্রতিপন্ন করার জন্য অনলাইন নিউজ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং ব্যক্তিস্বার্থচরিতার্থ ও সমাজে হেয় করার জন্য সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আরিফ ইতোপূর্বে ডিসটিনিসহ বিভিন্ন এমএলএম কোম্পানীতে অধীক টাকা উপার্জনের নাম দিয়ে বিভিন্ন মানুষ থেকে টাকা নিয়ে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে। যার বিরোদ্ধে বিভিন্ন সময় মানুষের টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ রয়েছে। আরিফ সময়ের গর্জন ডটকম নামে একটি ওয়েবসাইট খুলে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে নিজের এসব উপকর্ম ডাকতে ব্যর্থ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

মিনহাজ বলেন, আমি একজন সফল ব্যবসায়ী। ফেনী শহরের রেল স্টেশনস্থ ঝর্ণা হোটেলের পরিচালক। আমার বাবা সরকারি ব্যাংকে চাকুরী করেছেন। আমাদের পরিবারের সকল সদস্যই সম্মানের সহিত সমাজে বসবাস করছেন। আজ পর্যন্ত আমাদের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে সমাজে মারামারি বা খারাপ কোন অভিযোগ নেই। সময়ের গর্জনসহ বিভিন্ন অনলাইনে প্রকাশিত ওই সংবাদটি সম্পূর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

সুত্র,ফেনী নিউজ



Comments are closed.

      আরও নিউজ