বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

মামুনের ভালোবাসার মানুষটি পরকীয়া প্রেমিকের সাথে চলে গেছে

বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী) প্রতিনিধিঃভালোবাসা করে প্েমিকাকে নিজের করে নিতি দীগঁ দিন আগে প্রেমিকাকে বিয়ে করেছিলেন মামুন মোল্লা। বিয়ের পর প্রেমিকাকে স্ত্রী বানিয়ে সুখে সংসার করেছেন বছর। হঠাৎ করেই মামুনের সুখের সংসারে কালবৈশাখী ঝড় আসে। কিন্তু মামুন কিছুই টের পায়নি। আর যখন টের পেয়েছে তখন তার আর কিছুই করার ছিল না। এক মাস হলো মামুনের সেই ভালোবাসার মানুষটি পরকীয়া করে অন্যের হাত ধরে পালিয়ে গেছে। এই ঘটনার পরও একমাস স্ত্রীর অপেক্ষায় পথ চেয়ে বসে ছিল মামুন। কিন্তু ফিরে আসেনি স্ত্রী। অবশেষে পূবেঁর স্ত্রীকে মন থেকে মুছে ফেলতে ও নিজেকে শুদ্ধ করতে ঈদের ২২ দিন আগে একমন দুধ দিয়ে গোসল করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্য নিজেকে তৈরী করছেন মামুন।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মামুনের দুধ দিয়ে গোসল করার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তে ভিডিওটি ভাইরাল হয়। এর আগে গত রোববার (১৭ মার্চ) রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় নারুয়া ইউনিয়নের শোলাবাড়ী গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। মামুন মোল্লা উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের শোলাবাড়ী গ্রামের মৃত মাজেদ মোল্লার ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মামুন মেল্লা স্থানীয় একটি বাজারে ব্যবসা করতেন। মামুন মোল্লা ও তার স্ত্রী শাম্মী আক্তার ৭ বছর আগে দুজন দু’জনকে ভালোবেসে পারিবারিকভাবে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিবাহের পর তাদের বেশ সুখের সংসার ছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই মামুনের স্ত্রী শাম্মী তার বাবার বাড়ি এলাকার আমোদ আলীর ছেলে তপন আলীর সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। শাম্মীর বাবার বাড়ি একই উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের বালিয়াচর গ্রামে। পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে চলতি মাসের ২ তারিখ মামুনের স্ত্রী চলে যায়।

মামুন মোল্লা বলেন, আমি আমার স্ত্রীর কোনো কিছুর অভাব রাখিনি। কিন্তু সে আমার সঙ্গে প্রতরণা করে পরকীয়া প্রেম করেছে। এছাড়াও সে চলে যাওয়ার সময় নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ২ ভরি স্বর্ণ নিয়ে গেছে। দুধ দিয়ে গোসল করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি দুধ দিয়ে গোসল করে নিজেকে শুদ্ধ করেছি।

এ বিষয়ে নারুয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জনাব আলী উত্তরবঙ্গের সংবাদকে বলেন, মামুন মোল্লার বাড়ি আমার বাড়ির পাশে। সে ভালোবেসে সাত বছর আগে নবাবপুর ইউনিয়নের শাম্মী আক্তার নামের এক মেয়েকে বিয়ে করেছিলো। কিন্তু তার স্ত্রী পরকীয়া করে আরেকজনের সঙ্গে চলে গেছে। তাই মামুন গত রোববার এক মণ দুধ দিয়ে গোসল করে আবার দ্বিতীয় বিয়ে করেছে।

নারুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে।

সম্পর্কিত