ডিসেম্বর ৮, ২০২২ ৬:৪৭ বিকাল



বেড়া উপজেলার মাহমুদা সবুজের করোনা প্রতিরোধী প্রশংসনীয় উদ্যোগ

 

কাজী তানভীর(পাবনা প্রতিনিধি):
বেড়া উপজেলা শহর থেকে প্রায় ৩৬ কিলোমিটার দূরে শ্যামপুর গ্রাম, একজন নারী মাহমুদা সবুজের জন্য ইতিমধ্যে সুধিজনের নজর কেড়েছে। নিজস্ব ফাউন্ডেশন তাসকীনা সিনথী চ্যারেটি ফাউন্ডেশনের (টিএসসিএফ) তিনি পরিচালক মাহমুদা সবুজ। তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ও দিক নির্দেশনায় চলতি বছরের শুরুতে চীনে যখন করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারন করেছে তখন থেকেই তিনি করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করার লক্ষে বিভিন্ন সেমিনার ও অনুষ্ঠান করে আসছেন।

গত ১০ই মার্চ থেকে তিনি গ্রামের মানুষদের সচেতন করার লক্ষে মাসুমদিয়া ইউনিয়নসহ চর অঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে বিশেষ করে কাশেম মোড়,সিদ্দিক মোড়, মালদারহাট,ত্রিমোহনী,কাজিরহাট,বাধেঁরহাটের মানুষদের সচেতন করার লক্ষে করোনা ভাইরাসের সম্পর্কে বিভিন্ন সচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরন করে আসছেন। গত কয়েকদিন ধরে এই অঞ্চলের বিভিন্ন রাস্তাঘাট, দোকানপাট ও আশেপাশের জনবহুল এলাকায় জীবাণুনাশক ব্লিচিং মিশ্রিত পানি স্প্রে করেছেন বলে এলাকাবাসী নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়াও তিনি কাজিরহাট,বাধেরহাট,আমিনপুর,কাশিনাথপুর,নগরবাড়ি,মাসুমদিয়া, ত্রিমহনী গৃহহীন মানসীক রোগীদের মাঝে খাবার বিতরন করা হয়।

মাহমুদা সবুজ বলেন – দেশের ক্রান্তীলগ্নে আমি এলাকাবাসীর জন্য আমার যথাসাধ্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো। শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্ব যেখানে ভয়াবহ সময় কাটাচ্ছে সেখানে আমরাও এর বাইরে নই। তাই সবাইকে ঘরে থেকে ভাইরাস প্রতিরোধের নিয়মগুলো মেনে এই ভাইরাস প্রতিরোধ করতে হবে। তিনি তার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ বিভিন্ন স্বেচ্চাসেবী সংগঠন, ব্যক্তিবর্গকে এই ক্রান্তীলগ্নে দেশের অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানো জন্য মানুষকে সচেতন করে তুলবার জন্য ধন্যবাদ জানান।

সিনথী পাঠশালার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আজ করোনা আতংকে সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশও আজ মহাসংকটে রয়েছে। যদিও এটি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে সেভাবে প্রভাব বিস্তার করেনি তারপরও এর ঝুকি থেকে বাংলাদেশ মুক্ত হয়নি। কতদিন যাবৎ এই ঝুকিতে থাকতে হবে তা কেউ বরতে পারছেনা। এজন্য আমাদের গ্রুপ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দীর্ঘ মেয়াদি সচেতনতামূলক কার্যক্রমের প্রস্তুতি গ্রহন করেছি। ইতিমধ্যে আমাদের গ্রুপে ১০টি পিপিই রয়েছে। আমরা আপনাদের সেবায় বাইরে আছি,আপনারা ঘরে থাকুন।



Comments are closed.

      আরও নিউজ