নভেম্বর ২৬, ২০২২ ৩:৪৮ বিকাল



বগুড়া গাবতলীতে কর্মহীন মানুষদের ৭দিনের খাবার দিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খাঁন (রবিন)

০২/০৪/২০২০

স্টাফ রিপোর্টার মোঃমাহিদুল হাসান (মাহি)
করোনা ভাইরাস এর কারনে সারা দেশ লকডাউন হওয়ায় খেটে খাওয়া মানুষরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। আর এই সময় কর্মহীন মানুষদের খাবার ও আর্থিক সহযোগিতা করতে এবং খোঁজ-খবর নিতে বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় ছুটে যাচ্ছেন বগুড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গাবতলী উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফি নেওয়াজ খাঁন রবিন। এর ধারাবাহিকতায় ০২-০৪-২০২০ইং তারিখ রোজঃ বৃহস্পতিবার উপজেলার তরনীরহাট কলেজ মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের কর্মহীন মানুষদের ৭দিনের খাবার প্যাকেট করে দিয়েছেন তিনি (রবিন)। এর পর বাগবাড়ী হাইস্কুল মাঠে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নশিপুর ইউনিয়নের কর্মহীন মানুষদের ৭দিনের খাবার প্যাকেট করে দেয়া হয়েছে। প্যাকেটে রয়েছে ১০কেজি চাল, ২কেজি আলু, ১কেজি পেয়াঁজ, আদাকেজি ডাল ও আদা লিটার ছোয়াবিন তেল। এ ছাড়াও অনেক স্থানে আর্থিকভাবে সহযোগিতা ও শিশু খাদ্য দিয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খাঁন রবিন। শিশু খাদ্যে’র মধ্যে ছিল গুড়া দুধ, সুজি, চিনি, বিস্কুট। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে এ ধরনের খাবার বিতরণ অব্যহত রয়েছে। খাবার বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন রবিন খাঁন ছাড়াও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রওনক জাহান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) সালমা আকতার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারঃ) আব্দুস সালাম ভূলন, সাধারণ সম্পাদক আঃ রাজ্জাক মিলু, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল গফুর, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম মুক্তা, রেকসেনা আকতার, পৌর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন দিলু, বালিয়াদিঘী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউনুছ আলী ফকির, সাধারণ সম্পাদক শাহ নেওয়াজ জাকি, নশিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল হক ফকির, সাধারণ সম্পাদক উজ্জল মিয়া, বাগবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবু মুসা, আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান দুলু, আবুল কালাম প্রমূখ। খাবার বিতরণকালে উপজেলা চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খাঁন রবিন বলেন, আওয়ামী লীগ মানুষের কল্যাণে রাজনীতি করে। তাই মহান আল্লাহ’র রহমতে গাবতলী উপজেলায় একটি মানুষও না খেয়ে মারা যাবে না। তিনি আরো বলেন, সরকারী বরাদ্দ ছাড়াও ব্যক্তিগতভাবে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে কর্মহীন গরীব অসহায় মানুষদের বাড়িতে কমপক্ষে ৭দিনের খাবার দেয়া হচ্ছে। তার পরও কোন মানুষের খাবারের সমস্যা হলে আমাদের সাথে কথা বললে তাদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রওনক জাহান বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কিছু দিন কষ্ট করে আমাদের ঘরে বসে থাকতে হবে। ইনশাআল্লাহ মানুষের খাবারের কোন সমস্যা হবে না। তাছাড়া সরকারীভাবে আরো বরাদ্দ দেয়া হবে।



Comments are closed.

      আরও নিউজ