বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

বগুড়ার মহাস্থানে ফিল্মি স্টাইলে কলা বোঝাই ট্রাক ছিনতাই, মালিক নিখোঁজ

শাকিল আহম্মেদ (বগুড়া)স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর ইউনিয়ন এর মহাস্থানগড় মাযার এলাকায় ফিল্মি স্টাইলে কলা বোঝায় ট্রাক ছিনতাই ও মালিক নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। জানাগেছে   কুষ্টিয়ার জনৈক  কলা ব্যবসায়ীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও মারপিট করে কলা বোঝাই ট্রাকটি ছিনতাই করেন আলামিন সহ সংঘবদ্ধ একটি চক্র। ছিনতাইকৃত  তিন লক্ষ টাকার কলা  বিক্রির পরেও অপরাধীরা  কলার মালিকের সন্ধান দেননি। অবশেষে  ট্রাক ড্রাইভার রিগান হোসেনের অভিযোগ পেয়ে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার রায়নগর ইউনিয়নের নাগরবন্দর এলাকার একটি কলা পাকানোর ঘরে অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া কলা, ট্রাক এবং ট্রাক ড্রাইভারকে উদ্ধার করতে পারলেও ঘটনার সাথে জড়িত আলামিন ও দেলোয়ার সহ মূলহোতাদের আটক করতে পারেনি পুলিশ, অপহৃত কলা ব্যবসায়ী রয়েছে নিখোঁজ।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে কলা বোঝাই ট্রাকের কলা বিক্রি করে যাওয়ার সময় কলা ব্যবসায়ীকে হাত পা বেঁধে মুখে টেপ মেরে অপহরণ করে নিয়ে গেছে সংঘবদ্ধ ওই চক্রের সদস্যরা। অভিযোগের মাধ্যমে জানাগেছে গতকাল সোমবার সকালে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার চর সোনাতলা থেকে একটি কাঁকড়া ট্রাক গাড়িতে কলা বোঝাই করে নিয়ে বিক্রির উদ্দেশ্যে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার নয় মাইল বাজারে আসে। ঈদ জনিত কারনে রাস্তায় জ্যাম হলে বাজারে আসতে দেরী হয় মর্মে সিদ্ধান্ত নেয় আজ মঙ্গলবার  কলা বিক্রি করবে।সময় কাটানোর জন্য তাঁরা বেলা ২টায় কলা বোঝাই ট্রাকসহ মহাস্থান মাযারে জিয়ারত করতে আসে। মাজারের পাশ্ববর্তী ঈদগাহ মাঠে ট্রাকটি পার্কিং করে মাযার জিয়ারত করে ফিরে আসলে বিকেল ৪টার সময় আল আমিন ও দেলোয়ার হোসেন নামে দুই যুবক সহ সঙ্গীয় ১০/১২ সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজন দেশীয় অস্ত্রের মুখে  কলার মালিক ও ট্রাক ড্রাইভারকে জিম্মি করে। এক পর্যায়ে তাঁরা থানা পুলিশের ভয় দেখিয়ে ট্রাক ড্রাইভার ও কলার মালিককে জোরপূর্বক মহাস্থান থেকে নাগরবন্দর এলাকায় নিয়ে যেতে বাধ্য করে। সেখানে গিয়ে স্থানীয় কলা ব্যবসায়ী ডাবলুর নিকট ট্রাক ভর্তি কলাগুলো স্বল্পমূল্যে বিক্রি করে দেয়। এরপর তাঁরা কলার মালিককে হাত পা বেধে, মুখে স্কচ টেপ মেরে অজ্ঞাত স্থানে অপহরণ করে নিয়ে যায় এবং ট্রাক ড্রাইভারকে ট্রাক নিয়ে চলে যেতে বলে। পরে ট্রাক ড্রাইভার বিষয়টি ৯৯৯ এ কল করে অবহিত করলে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ নাগরবন্দর এলাকায় অভিযান চালিয়ে লুট হওয়া ২৮০ ছড়ি বা ঘাউর কলা ও ট্রাক উদ্ধার করে। এসময় পুলিশ চোরাই কলা কেনার অভিযোগে ডাবলুকে আটক করলেও রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত  কলার মালিককে উদ্ধারের খবর পাওয়া যায়নি।
শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ আব্দুর রউফ বলেন,  পুলিশ লুট হওয়া কলা ও ট্রাক উদ্ধার করেছে ঘটনায় জরিত একজনকে আটক করা হয়েছে।  অপহৃত কলার মালিককেও উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

সম্পর্কিত