জানুয়ারী ২৭, ২০২৩ ১১:২৫ সকাল



ফুলছড়িতে স্থানীয় পুলিশ ও সেনাবাহিনীর টহল,রাস্তাঘাট জনমানব শূন্য

 

রিপন মিয়া,ফুলছড়ি (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলায় রাস্তাঘাট অনেকটাই জনমানব শূন্য বা ফাঁকা।রাস্তাঘাট,দোকানপাট,নদী বন্দর, এমনকি উপজেলা শহরের ভেতরের ও উপজেলার বিভিন্ন যোগাযোগের সবধরনের গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে।ঔষধ, মুদী ও কাঁচা বাজারের কিছু দোকান খোলা আছে,তবে বন্ধ সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

উপজেলা শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলের রাস্তাঘাট ও বন্দরগুলোও জনশূন্য হয়ে পড়েছে।করোনা এড়াতে মানুষকে নিজ নিজ ঘরে রাখতে টহল দিচ্ছে স্থানীয় পুলিশ ও সেনাবাহিনী।বিভিন্ন স্থানে চেক পোস্ট স্থাপন করে জনসমাগম রোধে কাজ করছে স্থানীয় পুলিশ,সেনাবাহিনী ও র‌্যাব।

বিশেষ করে দোকান খোলা বা মুখে মাস্ক না লাগিয়ে রাস্তায় চলাচল করলে স্থানীয় পুলিশ এবং সেনাবাহিনী শাস্তি দিবে এই ভয়ে কেউ আর ঘর থেকে বের হচ্ছে না।আর কেউ বা বের হইলেও প্রশাসনের হাতে তাদের পড়তে হচ্ছে।ফলে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ফুলছড়ি উপজেলা শহরের ব্যস্ততম সড়কগুলো একেবারেই ছিল জনশূন্য।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উপজেলা শহর সহ সর্বত্রে জোরদার টহল শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন এবং সেনাবাহিনী।তাদের কঠোর অবস্থানের কারণে ফুলছড়ি উপজেলার রাস্তাঘাট অনেকটাই জনমানবশূন্য হয়ে পড়ে।অতি প্রয়োজন ছাড়া মানুষজন ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। রাস্তায় হাতেগোনা কিছু রিকশা এবং ব্যক্তিগত যান মোটরসাইকেল ছাড়া কিছুই চলছে না। ঔষধ, মুদী ও কাঁচা বাজারের দোকান ছাড়া বন্ধ রয়েছে সব দোকানপাট,হোটেল রেস্তোরা এমনকি চায়ের দোকানও। অনেকটা ভূতুরে পরিবেশ চারিদিকে।

এদিকে করোনার হাত থেকে নিজেকে এবং অপরকে নিরাপদ রাখতে সরকারি নির্দেশ মেনে সবাইকে নিজ নিজ ঘরে অবস্থানের জন্য অনুরোধ করেন উপজেলার নির্বাহী অফিসার আবু রায়হান দোলন।
তিনি আরও বলেন গুজবে কান না দিয়ে বা আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হোন।তিনি আরও বলেন সবসময় পরিষ্কার পরিছন্ন থাকুন এবং ঘন ঘন সাবান দিয়ে ভালো ভাবে হাত ধৌত করুন।



Comments are closed.

      আরও নিউজ