নভেম্বর ২৬, ২০২২ ৩:০৭ বিকাল



পৌষ মাসের শুরুতেই হঠাৎ করে শীত কাঁপতে শুরু করছে মোংলা তথা দক্ষিণ জনপদের মানুষ

 

শেখ রাফসান মোংলা বাগেরহাট প্রতিনিধি।

উত্তর-পশ্চিমা কনকনে হিমশীতল হাওয়া ও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশায় বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। কনকনে হিম বয়ে আনা বাতাসে হাড় কাঁপুনি শীত।
শীতের পারদ নামতে শুরু করার পরে জনজীবনেও শীতের চেনা ছবি ফিরে এসেছে। ঝলমলে রোদে শীতের পোশাক পরেও ঠক ঠক করে কাঁপছে মানুষ। গত সন্ধ্যার মোংলা শহরের অলিগলিতে আগুন জ্বেলে চলে হাত-পা সেঁকেছতে দেখা গেছে মানুষের। রাত একটু গড়াতেই রাস্তা-ঘাট হয়ে পড়ে সুনসান। গত দু’দিন ধরে মোংলার এমন চিত্র দেখা যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে পৌষের কনকনে ঠাণ্ডায় কাঁপছে মোংলা শহর। গত কয়েক দিনের শীতের কামড়ে অনেকেরই অবস্থা কাহিল।
মোংলা আবহাওয়া অফিস বলছেন মোংলর ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। গত রাতে চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বনিম্ন ৭ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আর খুলনায় ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাপমাত্রার পারদ দিনদিন যত নামছে, ঠাণ্ডায় জবুথবু শহরে ততই বাড়ছে শীতের পোশাকের বিক্রি।
মোংলা বাসিন্দা আলী রেজা বলেন, দু’দিন থেকে জেঁকে বসেছে শীত। সকাল থেকে গরম কাপড় গায়ে দিয়ে, কানটুপি ও গলায় মাফলার পেঁচিয়ে বাইরে বের হতে হচ্ছে। শীতের তীব্রতা এত বেশি ঘর থেকে বের হওয়া দায়। কুয়শাতিনি বলেন, গত দু’দিন থেকে প্রচণ্ড শীত পড়ছে। মোংলার উপকুল সহ নদীর পাড়ে গুচ্ছগ্রামে ও বেড়ীবাঁধের ওপর বসবাসকারী গরিব অসহায় মানুষগুলো খুব কষ্টে আছে। এদিকে কনকনে শীত ও কুয়াশার কারণে বিশেষ করে শিশু-বৃদ্ধদের দুর্ভোগ বেড়ে গেছে। সর্দি-কাশি, জ্বর, শ্বাসকষ্টজনিত রোগ-ব্যাধির প্রকোপ বেড়েছে। হতদরিদ্র নিম্নআয়ের দিনে এনে দিনে খাওয়া মানুষজনের আয়-রোজগারের ক্ষেত্রেও পড়েছে বিরূপ প্রভাব। হঠাৎ করেই আবহাওয়ার এ পরিবর্তনে ছিন্নমূল মানুষকে চরম বেকায়দায় পড়তে হচ্ছে। হাঁড় কাঁপানো শীতে থেমে গেছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। তীব্র শীতের কারণে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। ব্যবসা-বাণিজ্যসহ মানুষের দৈনন্দিন কাজ-কর্ম ও চলাফেরায় মারাত্মক বিঘ্নের সৃষ্টি হচ্ছে। খেটে খাওয়া মানুষগুলো কাজে যেতে পারছে না। এতে দরিদ্র, অসহায় ছিন্নমূল ও নিম্ন আয়ের মানুষের কষ্টের সীমা নেই। ছেলেমেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। বিশেষ করে বাসস্টান্ড, বস্তিত ও বেড়িবাঁধের ওপরে বসবাসকারী হতদরিদ্র ছিন্নমূলের মানুষদের। প্রচণ্ড শীতে পরিবেশ, জলবায়ু, বন মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার মোংলায় বিভিন্ন ইউনিয়নে জনস্বাধারণের মাঝে শিতবস্ত্র সহ কমম্বল বিতারণ করেছেন।
#



Comments are closed.

      আরও নিউজ