বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

পাকিস্তানের পাঞ্জাব পরিষদের নির্বাচিত সদস্যরা শপথ নিলেন

অনলাইন ডেস্ক :চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো নির্বাচন। নিবার্চনে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) পেয়েছিলো ১৩৭টি আসন এবং ১৩৮ আসনে জিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রাথীরা। তবে অনান্য দলগুলোর সঙ্গে জোট করে সরকার গঠনের জন্য এগিয়ে যায় পিএমএল-এন। সেই মতে আজ পাকিস্তানের নির্বাচনে পাঞ্জাব প্রদেশ থেকে জয়ী প্রার্থীরা শপথ নিয়েছেন।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) তাদের শপথ পড়ান বিদায়ী স্পিকার সিবতাইন খান। এ শপথের মধ্যদিয়ে নওয়াজ কন্যা মরিয়ম নওয়াজ সংসদীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করলেন।

সিবতাইন খান বলেন, ‘শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) গোপন ব্যালটের মাধ্যমে পাঞ্জাব প্রাদেশিক সরকারের স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত করা হবে। এজন্য আজ স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে।’

৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনের পর এটাই ছিল প্রথম প্রাদেশিক পরিষদের অধিবেশন। যেখানে নবনির্বাচিত সদস্যরা শপথ নিয়েছেন।

অধিবেশনে ৩১৩ জন আইনপ্রণেতা উপস্থিত ছিলেন, যার মধ্যে ২১৫ জন পিএমএল-এন এবং এর সহযোগী দলগুলোর। বাকি ৯৮ জন ছিলেন সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলের (এসআইসি) সদস্য।

তবে দুই ঘণ্টা দেরিতে এই শপথ অনুষ্ঠান শুরু হয়। দেরিতে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন), পাকিস্তান তেহেরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) এবং সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলের নির্বাচিত সদস্যরা শপথ নেয়ার সময় একে-অপরের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকেন ও উচ্চবাচ্য বিনিময় করেন।

উল্লেখ্য, প্রাদেশিক সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পিএমএল-এনের পক্ষ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন নওয়াজ শরিফের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ। এর মাধ্যমে তিনিই হবেন পাকিস্তানের সাত দশকের ইতিহাসে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী।

সূত্র: জিও নিউজ।

সম্পর্কিত