মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

ধামইরহাটে জোরপূর্বক গাছ কাটার অভিযোগ

ধামইরহাট নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর ধামইরহাটে উপজেলার বড়থা গ্রামে জোরপূর্বক গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে এ বিষয়ে উপজেলার বড়থা গ্রামের গোলজার হোসেন (৬৫) বাদী হয়ে ধামইরহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন অভিযোগ সূত্রে জানা যায় বড়থা গ্রামের রেজাউল হোসেন (৬০) পিতা মোজাফফর রহমান, আবু জাহেদ (৩০) আবু ছায়েদ ( ২২) আতোয়ার হোসেন (৬২) শামীম হোসেন (৩০) লিটন হোসেন (২৮) আফাজউদ্দিন (৬৫) মুন্না বাবু (২৭) শাকিল হোসেন (২১) সর্ব সাং উপজেলার ৫ নং আড়ানগর ইউনিয়ন, ভুক্তভোগী গোলজার হোসেন বলেন বড়থা মৌজা যাহার জেএল নং ১৫৬,সিএস খং নং ৬৭,এস এ খং নং ৭১,দাগ নং ৬২৩, জমির পরিমাণ ১,৩৯ একর সম্পত্তি আমাদের মা গোলে নাহার দীর্ঘদিন হইতে ভোগ দখল করিয়া আসতেছে। এমত অবস্থায় আর এস খতিয়ান প্রস্তুতকালে ভুল ভবিষ্যৎ গোলে নাহার এর নামে খতিয়ান প্রস্তুত হয় নাই এই বিষয়ে আদালতে ভুল সংশোধনের জন্য একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে মামলাটি চলমান রয়েছে এমত অবস্থায় আমি জমিতে আসতে পারি না তারা জোরপূর্ব করে আমাকে আসতে দেয় না বিগত প্রায় ১০ বছর আগে জমিতে আম গাছ কাঁঠাল গাছ সহ বিভিন্ন গাছ রোপন করেছি , এমত অবস্থায় ১৮/৬/২০২৪ ইং তারিখে দুপুর আনুমানিক ১:৩০ মিনিটে উল্লেখ্য বিবাদীগণ পূর্বের জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে জমিতে এসে গাছ তিনটি কাটে বাধা দিতে গেলে আমাকে ধারালো অস্ত্রদে জখম করে এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারধর করে আমি জীবন রক্ষার স্বার্থে ৯৯৯ লাইনে কল দিয়ে প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়েছি এবং আমি বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছি বলে জানিয়েছেন তিনি।
এ বিষয়ে বিবাদী রেজাউল হোসেনের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন আমাদের জমি আমরা গাছ কেটেছি এবং আমরা থাকা অবস্থায় কোনদিনও জমিতে আসতে পারবে না আসলে ঠ্যাঙ্গের গিরা ভেঙ্গে দিব আমরা কোনদিনও তাকে এই জমিতে আসতে দিব না কারণ আমরা কিনেছি জমি বলে জানিয়েছেন তিনি,
এ বিষয়ে ধামইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী বিপিএম পিপিএম, বলেন একটা অভিযোগ পেয়েছি যেহেতু জমি সংক্রান্ত বিষয় তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সম্পর্কিত