রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

দেহ উদ্ধারের পরের দিনই রক্তাক্ত ছুরি ও মস্তক উদ্ধার

আব্দুল লতিফ সরকার,আদিতমারী প্রতিনিধিঃলালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় মস্তক বিহীন মরদেহ উদ্ধারের পরের দিনেই পাশাপাশি জায়গা থেকে রক্তাক্ত ছুরি ও মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের রমনীগঞ্জ গ্রামের একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে মানিকুল ইসলাম (২৫) এক ভ্যান চালকের মস্তক বিহীন দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

শুরুতেই মরদেহটি শনাক্ত করতে না পারলেও পরবর্তীতে তার পড়নের পোশাক ও স্যান্ডেল দেখেই তার পরিবারের লোকজন শনাক্ত করে। মরদেহটি উদ্ধারের পর রিপোর্টের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়। এরপর ২০ জানুয়ারি শনিবার সকালে যে এলাকাটিতে মস্তকবিহীন দেহটি উদ্ধার করা হয়েছিল তার পাশ থেকেই রক্তাক্ত ছুরি ও মস্তক দেখলে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পুলিশ এসে সেগুলো উদ্ধার করে।

নিহত যুবক হাতীবান্ধা উপজেলার সিংগিমারী ইউনিয়ন এর সিংগিমারি গ্রামের আব্দুস সাত্তারের পুত্র। এই ঘটনার পিছনে একটি ভ্যান চুরির কথা বিভিন্ন ভাবে শোনা যাচ্ছে। কয়েকদিন আগে হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ চত্বরের সামনে থেকে আবুল কাশেমের পুত্র বাবুলের একটি ভ্যান চুরি হয়ে যায়।সেই ঘটনায় মানিকুলকে সন্দেহীত ভাবে দোষারোপ করা হচ্ছিল।এরপর থেকে মানিকুল নিখোঁজ ছিলো। নিহতের পরিবার বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, এ চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের রহস্য উৎঘাটনে পুলিশের পাশাপাশি সিআইডির একটি তদন্ত কমিটি অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছেন।

সম্পর্কিত