নভেম্বর ৩০, ২০২২ ৪:২৬ বিকাল



তাহিরপুরে নির্মাণাধীন সেতু এলাকায় বালি-পাথর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার এলজিইডি কর্তৃক নির্মণাধীন ৭৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে সেতু হযরত শাহ্ আরেফীন ও অদ্বৈত মৈত্রী সেতু এলাকার আশপাশের ১ কিলোমিটারের মধ্যে বালি-পাথর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার দুপুরে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জী সরেজমিনে গিয়ে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, তাহিরপুর থানার বাদাঘাট পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই মাহমুদুল হাসান, এএসআই বিল্লাল হোসেন, সাংবাদিক সাজ্জাদ হোসেন শাহ্, কামাল হোসেন, আবির হাসান-মানিক ও হযরত শাহ্ আরেফীন (র.) ও অদ্বৈত মৈত্রী সেতুর প্রজেক্ট ম্যানেজার মিয়া এমডি নাসিরসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।
প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার প্রচার হয় ‘হুমকির মুখে যাদুকাটা নদীতে নির্মাণাধীন স্বপ্নের সেতু হযরত শাহ্ আরেফীন (র.) ও অদ্বৈত মৈত্রী সেতু, পার্শ্ববর্তী তীর কেটে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে’। এরই প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সেতু সংলগ্ন কোন জায়গায় কোয়ারী করে বালি উত্তোলন করা হয়নি, সেতু নির্মাণের প্রয়োজনে কয়েকটি যায়গায় ছোট ছোট গর্ত করা হয়েছে। যা পরবর্তীতে ভরাট করা হবে জানিয়েছেন সেতু নির্মাণাধীন ঠিকাদারী কর্তৃপক্ষ। তবে, সেতু এলাকা থেকে প্রায় ১কি.মি দূরে বেশ কয়েকটি স্থানে গর্ত করে বালি উত্তোলন করতে প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজেন ব্যানার্জী বলেন, মঙ্গলবার নির্মাণাধীন সেতু এলাকা পরিদর্শন করে সেতু নির্মাণ সংশ্লিষ্ট সকলকে বলা হয়েছে আজ থেকে এর উভয় দিকে ১কি.মি. এর মধ্যে সকল ধরণের বালু-পাথর উত্তোলন ও গর্ত করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করা হলো। কেউ যদি নিষেধ অমান্য করে বালি উত্তোলন করে তাহলে প্রশাসনের পক্ষ্য কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, কেউ যদি রাতের আধারে প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে বালি পাথর উত্তোলন করে তাহলে সঙ্গে সঙ্গে আমি অথবা তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জকে বিষয়টি অবগত করার জন্য এলাকাবাসীকে বলা হয়েছে



Comments are closed.

      আরও নিউজ