মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে চ্যারিটি ব্লাড ইউনিটের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

মাহিদুল ইসলাম ফরহাদ,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার স্বনামধন্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন চ্যারিটি ব্লাড ইউনিটের তৃতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা,স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও রক্তদানকারীদের নিয়ে মিলন মেলার আয়োজন করা হয়।

আজ শনিবার বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের হল রুমে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও কেক কাটা হয়। এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য), সিসিডি বারডেম, ডি-কার্ড (বিএসএমএমইউ), ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট্য জেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ও প্রধান উপদেষ্টা, চ্যারিটি ব্লাড ইউনিট ডাঃ মোঃ আব্দুস আমাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ তোসিকুল ইসলাম তোসি।

প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি ডঃ মোঃ গোলাম রাব্বানী, শিশু পুষ্টি ও ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ রাজশাহী ডাঃ নাহিদ ইসলাম মুন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃ মোদাশ্বের হোসেন সুমন, অর্থী করিয়ান ল্যাংগুয়েজ সেন্টারের পরিচালক মোঃ আব্দুর রউফ (মুকুল), চ্যারিটি ব্লাড ইউনিটের উপদেষ্টা মোঃ জমশেদ আলী, ল্যাব ওয়ান মেডিক্যাল সার্ভিসেসের ম্যানেজার অহিদ জামান ।

শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন চ্যারিটি ব্লাড ইউনিটের উপদেষ্টা মোঃ ওয়ালিদ হাসান (মাইনুল)। তুচ্ছ নয় রক্তদান বাঁচাতে পারে একটি প্রাণ স্লোগানকে সামনে নিয়ে চারিটি ব্লাড ইউনিটে মানবতার সেবায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসাবে কাজ করে যাওয়ার কথা উল্লেখ করেন উপদেষ্টা গত তিন বছরের কার্যক্রম তুলে ধরেন।

বক্তারা জানান যে দেশে হাফ লিটার পানি টাকা দিয়ে কিনতে হয় সে দেশে রক্ত বিনামূল্যে পাওয়া যায়। যা সত্যি মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রাখছে চ্যারিটি ব্লাড ইউনিট।

বক্তারা আরো বলেন পৃথিবীতে ৪ সেকেন্ড পর পর একজন ব্যক্তির রক্তের প্রয়োজন হয় সে রক্তের চাহিদা গুলো পূরণ করছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো। বাংলাদেশে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো ৫০% রক্তের চাহিদা পূরণ করে আসছে।

সকল রক্তযোদ্ধাদের জন্য সকলে মিলে করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়। প্রোগ্রামে ডোনারদের উদ্বুদ্ধ করতে ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

সম্পর্কিত