আজ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ



গাইবান্ধায় কবর দেয়ার ৯ মাস পর বৃদ্ধা ফিরে আসার গুজব খুলনার শেফালী সরদার কে নিয়ে লংঙ্কা কান্ড

 

গাইবান্ধায় কবর দেয়ার ৯ মাস পর বৃদ্ধা বাছিরন ফিরে আসার গুজবের ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল ভিডিও। দেশ ও বিদেশে ছড়িয়ে পড়লো সেই মৃত মানুষ জীবিত হওয়ায় গুজবের ঘটনাটি। গাইবান্ধা শহরের ডেভিড কোম্পানীপাড়ার ৯৫ বছর বয়সী বাছিরন নামের এক বৃদ্ধার কবর দেয়ার ৯ মাস পর ফিরে আসার বিষয়ে গত ১১ মে বুধবার গুজব ছড়িয়ে পড়ে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে মৃত বাছিরনের ফিরে আসার গুজবে তার মেয়ে মাজেদা বেগমের বাড়িতে লোকজনের ভীড়ও বাড়তে থাকে। সাধারণ মানুষের সাথে গণমাধ্যমকর্মীরা সেখানে তথ্য সংগ্রহ করে প্রতিযোগীতা মুলকভাবে প্রকাশ করা হয়। মুহুর্তেই দেশ থেকে বিদেশ ভাইরাল হয় ঘটনাটি। এমন গুজবের ফলে লোকজনের ভীড় সামলাতে পুলিশ এসে কথিত ফিরে আসা বাছিরনকে থানায় নিয়ে যায়। এরপর কথিত ফিরে আসা বাছিরনের পরিচয় জানা যায়, তিনি খুলনা অঞ্চলের বাসিন্ধা তার প্রকৃত নাম শেফালী সরদার । কথিত কবর থেকে উঠে আসা সেই নারী বাড়ি ফিরে গেছেন। মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে তিনি খুলনা জেলার দৌলতপুর থেকে পথ হারিয়ে ট্রেনে করে গাইবান্ধায় আসেন। গাইবান্ধা সদর থানা পুলিশ আজ সকালে তাকে আশ্রয় দেয়া দৌলতপুর নিবাসী সুফিয়া বেগমের কাছে হস্তান্তর করেন। এসবের মধ্য দিয়ে গুজব নাটকের অবসান হলো।

এর আগে এমন খবরে, গাইবান্ধা রেল স্টেশন সংলগ্ন উত্তর পাশে ডেভিড কোম্পানীপাড়ার মৃত আনিছুর রহমানের স্ত্রী মাজেদা বেগমের বাড়িতে বাছিরনকে এক নজর দেখতে মানুষের ভীড় উপচে পড়ে। এসময় মাজেদা বেগম ওই মহিলাকে নিজের মা দাবি করে বলেন, গত ৯ মাস আগে আমার মা মারা যান। তাকে গাইবান্ধা পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়। কিন্তু গত ১০ মে মঙ্গলবার রাতে আমার মা স্টেশনে এসে ভাই গেদাকে খোঁজ করেন। পরে লোকজন গেদাকে খুঁজে এনে মায়ের সাথে দেখা করিয়ে দেন। আমি খবর পেয়ে স্টেশনে গিয়ে মাকে বাসায় নেয়ার চেষ্টা করলে তিনি রাজি হননি। আমরা সারারাত তার সাথে স্টেশনে কাটাই। পরে ১১ মে বুধবার সকাল ৭টায় বাড়িতে এসে তার থাকা ঘরে প্রবেশ করেন এবং তিনি নাতি-নাতনিদেরকেও নাম ধরে ডাকেন বলে দাবী করেন মাজেদা বেগম। যা পরে মহুর্তে ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় যত গুজবের।

এবিষয়ে গাইবান্ধা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুদুর রহমান জানান, আনুমানিক ৬০/৬৫ বছরের ওই মহিলা খুলনা জেলা থেকে মঙ্গলবার রাতে গাইবান্ধা রেল স্টেশনে আসেন। তিনি বেশ দুর্বল, বেশিক্ষণ কথা বলতে পারেন না। তার নাম শেফালী সরদার বলে তিনি জানান। রেল স্টেশন সংলগ্ন বাড়ির মাজেদা বেগম তাকে তার মায়ের মত দেখতে মনে হলে কাছে গিয়ে মা ডাকেন। এরপর বেশকিছু সময় কথাবার্তা বলে তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। এরপর ওই বৃদ্ধাকে মাজেদা বেগম ও তার বড় ভাই গেদা নিজের মা বলে প্রচার করলে এলাকার লোকজন তাকে দেখার জন্য ভীড় করতে থাকে। এ গুজবের নেপথ্যের কারন খতিয়ে দেখা হচ্ছে।



Comments are closed.

      আরও নিউজ

ফেসবুক পেইজ