বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

কুড়িগ্রামে কিশোরী অপহরণ, থানায় মামলা দ্বায়ের, আসামী পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক: কুড়িগ্রাম সদরে ১৪ বছর বয়সী মাদ্রাসা পড়ুয়া ৭ম শ্রেণির এক কিশোরীকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় কিশোরী আয়শা সিদ্দিকা রশনি (১৪)
নিজ বাসা হতে নানার বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। রাতে কিশোরীর মা জিন্নাত আরা জেমিন বাবার বাসায় মেয়ে পৌঁছাইছে কিনা জানতে ফোন দিলে বাবার বাড়ির লোকজন জানান তার মেয়ে সেখানে পৌঁছাইনি। এরপর আত্নীয় স্বজন ও পরিচিত জনের বাসায় খোঁজা খুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি।

পরে প্রতক্ষদর্শী স্থানীয় আরব আলী,শাহনাজ পারভিন ও নাজমা বেগমের মাধ্যমে জানান, প্বার্শবতী পুলিশ ফাঁড়ি মুন্সি পাড়া গ্রামের আমিনুর রহমানের ছেলে আশির্বাদ সন্ধায় মোটর বাইকে রশনিকে নিয়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীর কাছে ঘটনা শুনে কিশোরীর মা আশির্বাদের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

পরে দুদিন ধরে কিশোরীসহ গা ঢাকা দেন অপহরণকারী। পরে ১৯ই এপ্রিল ২০২৪ ইং তারিখে কিশোরীর মা বাদী হয়ে কুড়িগ্রাম সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আশীর্বাদ কে অপহরণের দায়ে প্রধান আসামী করে মামলা রুজু করেন। কুড়িগ্রাম সদর থানায় মামলা রেকর্ডের ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও মামলার প্রধান আসামী আশির্বাদকে গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাসুদুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ বিষয়ে কিশোরীর মা বাদি হয়ে মামলা দ্বায়ের করেছেন। এরই মধ্যে কিশোরী রশনিকে উদ্ধার করা হয়েছে। আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সম্পর্কিত